শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪

এমএজি উসমানী হাসপাতালে ১৫০ কর্মীর সংবাদ সম্মেলন কাজে যোগ দিতে দিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ,

আপডেট:

সিলেট বিভাগীয় প্রতিনিধি

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আউটসোরসিং নিয়োগ পাওয়া যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিস লিঃ ১৫০ কর্মচারীকে কাজে যোগ দিতে বাধা দিচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হঠাৎ করে কোন ধরনের নোটিশ ছাড়া দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখায় বিপাকে পড়েছেন এসব কর্মচারীর পরিবারের সদস্যরা।

বিজ্ঞাপন

গতকাল মঙ্গলবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তথ্য জানিয়ে কর্মচারীরা তাদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

লিখিত বক্তব্য যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিস লিঃ এর পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চলতি মাসের ডিউটি রোস্টার করা হলে অজ্ঞাত কারণে তাদেরকে কাজে যোগ দিতে দেয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ফলে ১৫০ পরিছন্নতা কর্মীর পরিবারের নেমে এসেছে হতাশা, চাকরি হারিয়ে তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। তারা তাদের নির্ধারিত ডিউটি রোস্টার অনুযায়ী কাজ চালিয়ে দিতে চায়, তিনি বলেন ২০১৮ সালের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরিছন্নতা কর্মী হিসেবে জনবল নিয়োগের জন্য যমুনা ষ্টার সেভ গার্ড সার্ভিস লিমিটেড সহ চারটি কোম্পানির দরপত্র দাখিল করে। এর মধ্যে যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের দর প্রস্তাব সিডিউলের সব শর্ত সঠিক ভাবে পূরণ করে দরপত্র দাখিল করে। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের প্রতিষ্ঠানের নামে কার্যাদেশ প্রদান না করে মেসার্স সানমুন ক্লিনিং এন্ড সিকিউরিটি সার্ভিসকে কার্যাদেশ ও চুক্তিপদ প্রদান করেন।

বিজ্ঞাপন

এর বিরুদ্ধে পিপিআর ২০০৮ অনুযায়ী যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিসেস লিঃ কে সিকিউরিটি সার্ভিসের কার্যাদেশ ও চুক্তি পত্র বাতিল করে যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিসেস লিঃ কে কার্যাদেশ প্রদানের জন্য আদেশ দেওয়া হয়। পরে রিভিউ প্যানেলে (সিপিটিইউ) মামলা করলে মেসার্স সানমুন ক্লিনিং এন্ড সিকিউরিটি সার্ভিসের কার্যাদেশ ও চুক্তিপত্র বাতিল করে যমুনা স্টার সেভ সার্ভিস লিঃ কে কার্যাদেশ প্রদানের জন্য আদেশ দেওয়া হয়। পরে রিভিউ প্যানেলের ও রায়ের বিরুদ্ধে মেসার্স সানমুন ক্লিনিং এন্ড সিকিউরিটি সার্ভিসেস হাইকোর্টের পিটিশন নং (৪০২৬/২০১৮) দায়ের করেন। পরবর্তীতে রিট পিটিশনটি ২০২১ সালের ২৫ অক্টোবর শুনানি শেষে হাইকোর্ট খারিজ করে দেন। এ অবস্থায় রিভিউ প্যানেলের (সিপিটিইউ) রায় বহাল থাকায় রায় অনুযায়ী যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিস লিঃ‌ গত ২০২১ সালের ১ ডিসেম্বর কার্যাদেশ প্রধান করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

কার্যাদেশ প্রদানের পর যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিস লিঃ কর্মচারী নিয়োগ দিয়ে কাজ শুরু করে। তারা আরো বলেন ৬ মাস পর এক মাস এক মাস করে সময় বর্ধিত করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে কৌশল হিসেবে ১৫০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী থেকে ধাপে ধাপে কর্মী কমাতে শুরু করে কর্তৃপক্ষ, প্রতিমাসেই হাসপাতাল কর্তৃক পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের ডিউটির রেজিস্টার করা হয়। সে অনুযায়ী যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিসের এর কর্মীরা সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। কর্মচারীদের অভিযোগ চলতি জুলাই মাসে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের দায়িত্ব পালনে বাধা দেন কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় যমুনা মানবিক বিপর্যয়ে পড়েছে, কাজ না থাকায় পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়া বাসা ভাড়া নিয়ে বিপাকে পড়তে হয়েছে। কোন ধরনের নোটিশ ছাড়াই হঠাৎ করে বিশাল সংখ্যক পরিচ্ছন্নতা কর্মীর চাকরি হারানোর ঘটনা ঘটে। আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে দাবি করেন তারা, তাই উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী যমুনা স্টার সেভ গার্ড সার্ভিস এর কর্মচারীরা কার্যক্রম বহাল ও কর্মীদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত