শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪

দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে বাংলাবান্ধায় বিজিবির ৫২তম বিজয় দিবস উদযাপন

আপডেট:

পঞ্চগড় প্রতিনিধি খাদেমুল ইসলাম

 

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের বিজয়ের ৫২তম বার্ষিকীকে স্মরণীয় করে রাখতে বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি আইসিপি পয়েন্টে বিজিবি-বিএসএফের জমকালো যৌথ ‘রিট্রিট সিরিমনি’ প্যারেডের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ী সমন্বিত আন্তর্জাতিক চেকপোস্টে (আইসিপি) ১৮ বিজিবির সার্বিক ব্যবস্থাপনায় জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়। এতে ভারতের ১৭৬ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ এর অধীনস্থ ফুলবাড়ি আইসিপির মধ্যে বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিজিবি-বিএসর যৌথ রিট্রিট প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে দু’দেশের ভ্রাতৃত্বের সেতু বন্ধনের অংশ হিসেবে বিজিবি-বিএসএফ প্যারেড কন্টিনজেন্ট চমকপ্রদ ও মনোমুগ্ধকর প্যারেড প্রদর্শন করেন। কুচকাওয়াজ, জাতীয় পতাকা নামানো, মিষ্টি ও উপহার সামগ্রী বিনিময় করা হয় উভয় দেশের বিজিবি-বিএসএফ কর্মকর্তাদের হাতে। ঐতিহাসিক জয়েন্ট রিট্রিট সেরিমনিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য বিনিময় করা হয় বিশেষ স্মারকচিহ্ন। পরে প্যারেড শেষে উত্তর-পশ্চিম রিজিয়নের কমান্ডার ও বিএসএফের নর্থ বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ারের আইজি বিজিবি ও বিএসএফ কন্টিজেন্টের সাথে ফটোশেসনে অংশগ্রহণ করেন।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উত্তর পশ্চিম রিজিয়নের বিজিবির রিজিয়ন কমান্ডার (অতিরিক্ত মহাপরিচালক) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খোন্দকার শফিকুজামান ও ভারতের আইজি ফ্রন্টিয়ার শ্রী সুরিয়া কান্ত শর্মা বলেন, বাংলাদেশ-ভারত পরম বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে বাংলাদেশ-ভারতের মানুষের মাঝে যে বন্ধুপ্রতীম ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রত হয়েছিলো সেই ভাতৃত্ববোধ স¤প্রসারণের পাশাপাশি উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে পারস্পরিক সৌহার্দ্য বাড়ানোর অংশ হিসেবে এ ‘রিট্রিট সিরিমনি’ অনুষ্ঠিত হয়। এ ধরণের অনুষ্ঠান দুদেশের সম্পর্ক উন্নয়ন ও মানুষকে দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ করবে। দু’দেশের মধ্যে ভাতৃত্ববোধ আরও বাড়িয়ে দিবে। উভয়দেশের মধ্যে সোহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনে সীমান্ত শান্তিশৃঙ্খলায় বিজিবি-বিএসএফ দায়িত্ব পালন করবে। এ জন্য এই স্মরণীয় দিনটিকে আরও গৌরবান্বিত করার লক্ষ্যে দুই দেশের বন্ধুত্বের এই নিদর্শন যৌথ রিট্রিট প্যারেডের আয়োজনকে সাধুবাদ জানান রিজিয়ন কমান্ডার, বিজিবি এবং আইজি বিএসএফ ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএসএফ মহাপরিচালকের পক্ষ থেকে ফ্রন্টিয়ার হেডকোয়ার্টারের ডিআইজি শ্রী সুশীল কুমার, বিজিবির ঠাকুরগাঁও সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল এম এইচ হাফিজুর রহমান, পঞ্চগড় ১৮ বিজিবির অধিনায়ক লে: কর্ণেল মো. যুবায়েদ হাসান ও বিএসএফের শ্রী পিকে সিং, ডিআইজি শিলিগুড়ী সেক্টরসহ বিজিবি-বিএসএফের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, অন্যান্য সামরিক ও স্থানীয় বেসামরিক কর্মকর্তা। এছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো.জহুরুল ইসলাম, পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদাসহ দুই দেশের সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের কর্মকর্তা, বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিক ও বিভিন্ন স্থান হতে আসা পর্যটকগন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত