শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪

বাংলাদেশে সৈয়দ জায়েদুলের মত যুবকদের খুব বেশি প্রয়োজন” অতিরিক্ত ডিআইজি খন্দকার ফরিদুল ইসলাম

আপডেট:

মোঃ জাকির হোসেন স্টাফ রিপোর্টের

 

বিজ্ঞাপন

সৈয়দ সিরাজ আলেয়া ফাউন্ডেশন কর্তৃক এতিম ও মাদ্রাসার ছাত্রদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। ২৭/০১/২০২৪ খ্রিঃ তারিখ দুপুর ২.৩০ ঘটিকায় সময় মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সৈয়দ বাড়ী/পীরের বাড়ীর কৃতিসন্তান যুক্তরাজ্য প্রবাসী, ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি নেতা এবং সৈয়দ সিরাজ আলেয়া ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব সৈয়দ জায়েদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং

জুড়ী উপজেলা কোয়াব এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ তানিম আহমেদ এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ডাঃ মোঃ আল আমিন তালুকদার প্রতিষ্টাতা ও নির্বাহী পরিচালক জুড়ী ল্যাব এইড ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার ও ডাইরেক্টর জুড়ী আধুনিক প্রাঃ হাসপাতাল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক সৈয়দ রকিবুল ইসলাম, সৈয়দ মনিরুল ইসলাম, ৭এবিপিএন এর মিডিয়া উইংয়ের এএসআই মোঃ পাবেল, সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম সুমন ও মাদরাসা শিক্ষক মাওলানা ওবায়দুর রহমান

বিজ্ঞাপন

এছাড়া এসআই ময়নুল হক, এসআই বাদল, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক বেলাল হোসেন, সাংবাদিক মোঃ জাকির হোসেন, সোনার বাংলা সমাজকল্যাণ সংস্থার সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা রিয়াজ উদ্দিন, মাদরাসার শিক্ষগন, এলকার বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন

প্রধান অতিথি অনুষ্ঠানস্থলে এসে পৌছালে মাদ্রাসার ছাত্রারা লাল গালিচা বিছিয়ে ফুল ছিটিয়ে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানায়

 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত ডিআইজি খন্দকার ফরিদুল ইসলাম বলেন “আমি জীবনে এক টাকাও হারাম খাই নাই, সততার সহিত জীবন পরিচালনা করি। আল্লাহকে ভয় করি। আজ মাদরাসার ছাত্ররা আমাকে যেভাবে সম্মান দিল এটা আমার জীবনের শ্রেষ্ট উপহার, শ্রেষ্ট পাওয়া, আমি গর্বিত,আমি অভিভূত, আমি চির কৃতজ্ঞ।” মাদরাসার উন্নয়নে তিনি ৫০ বস্তা সিমেন্ট দেওয়ার ঘোষণা দেন।

বক্তারা সৎ মানবিক পুলিশ অফিসার খন্দকার ফরিদুল ইসলামকে বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি হওয়ার আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। করোনা, বন্যায় সহযোগিতা সহ অসহায় মানুষের সাহায্য, গৃহহীনদের গৃহ নির্মানসহ বিভিন্ন মানবিক কাজের জন্য সৈয়দ জায়েদুল ইসলামকে জুড়ীর ব্যারিষ্টার সুমন বলে উপাধি দেন বক্তারা

 

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ জায়েদুল ইসলাম বলেন আমি লন্ডনে ব্যবসা করি। আমার ইনকামের ২০% আমার বাবা মায়ের নামে খরছ করি এলাকার মানুষের কল্যানে। মানব কল্যানে আমার এই কাজকে আরো গতিশীল করতে ও শৃঙ্খলার মধ্যে নিয়ে আসার জন্য এলাকার বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গের পরামর্শে আমার বাবা মায়ের নামে “সৈয়দ সিরাজ আলেয়া ফাউন্ডেশন” প্রতিষ্টা করি। আপনারা সবাই আমার বাবা মায়ের জন্য দোয়া করবেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে মাদ্রাসার ছাত্ররা সুললিত কণ্ঠে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত ও নাতে রাসুল সাঃ পাঠ করেন।

সৈয়দ সিরাজ আলেয়া ফাউন্ডেশন, সোনার বাংলা সমাজকল্যাণ সংস্থা ও সাংবাদিক সমাজকর্মী মোঃ জাকির হোসেন প্রধান অতিথিকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত